7:47 am - Tuesday January 16, 2018

আদম তমিজি, আপনি কত টাকার মালিক?

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র কিনেই গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি কটূক্তি করলেন সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে প্রার্থিতার ঘোষণা দিয়ে আলোচনায় আসা আদম তমিজি হক।

শনিবার আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র বিক্রির প্রথম দিন সকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে যান তমিজি। আর সেখান থেকে বের হয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে গণমাধ্যমের প্রতি ক্ষোভ ঝাড়েন তিনি।

আওয়ামী লীগের এই মনোনয়নপ্রত্যাশী বলেছেন, টাকা ছিটালেই সাংবাদিকের অভাব হয় না।

তমিজির ক্ষোভের কারণ, তিনি ভোটের লড়াইয়ে নামতে চাওয়ার পর গণমাধ্যম তাকে নিয়ে তেমন আলোচনা করেনি। আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আতিকুল ইসলামের নামই প্রচার করেছে।

আনিসুল হকের মৃত্যুর পর ফাঁকা হওয়া মেয়র পদ পূরণে যখন নির্বাচনের কথা চলছে তখন হঠাৎ ভোটে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন হক গ্রুপের ব্যবস্থাপক আদম তমিজি হক। তিনি নিজেকে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার শুরু করেন। তবে মূলধারার গণমাধ্যমগুলোতে তাকে নিয়ে তেমন কোনো আলোচনা হয়নি।

তমিজি সাংবা‌দিকদের বলেন, আগে আপনারা কোথায় ছিলেন? আজ আমি যখন নমিনেশন ফরম নিতে এসেছি তখন আপনাদের আমার দিকে নজর পড়েছে? এতদিন তো আপনারা সবাই আতিকুল ইসলামের পেছনে ছুটেছেন। আজ যখন বুঝেছেন আমি মেয়র হতে যাচ্ছি, তখন আপনারা আমার পিছু নিয়েছেন।

আমি একজন সাংবাদিক হিসাবে প্রিয় আদম তমিজির কাছে সবিনয় জানতে চাই, আপনি কত টাকার মালিক? আপনার কিসের এত টাকার গরম? সব সাংবাদিককে এক পাল্লায় মাপার দাম্ভিকতা আপনি কোথায় পেলেন? আরো প্রশ্ন কিছু প্রশ্ন আছে আপনার কাছে, আওয়ামী লীগের কোন পদে আছেন আপনি? কতদিন দিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করছেন? ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আগেও তো কখনো আপনার নামই শুনিনি। আওয়ামী লীগের একটি মাত্র প্রোগ্রামে আপনি শোডাউন করেছিলেন। তখন অর্থের দাম্ভিকতা দেখাতে ভুল করেননি।

প্রিয় আদম তমিজি, আপনাকে একটা কথা সুস্পষ্টভাবে মনে করিয়ে দিতে চাই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগে এমন দাম্ভিক, টাকার গরমওয়ালার কোনো ঠাঁই নেই। আপনার সম্পদের হিসাব জানতে চাই? সৎ সাহস থাকলে আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে আপনার সকল স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের হিসাব জাতির সামনে তুলে ধরুন।

আপনার সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত কোনো আক্রোশ নেই। কিন্তু আপনি সাংবাদিকতার মতো মহান পেশাকে নিয়ে যে কটুক্তি করেছেন তাতে আমরা ক্ষুব্ধ এবং লজ্জিত। আপনার মতো একজন দাম্ভিক মানুষ কিভাবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করেন সেটা নিয়েও প্রশ্ন তুলছি। বঙ্গবন্ধু সারাজীবন মানুষের জন্য নিজের সম্পদ বিলিয়ে ত্যাগের রাজনীতি করেছেন। তার আদর্শে অনুপ্রাণিত কোনো সৈনিক টাকার দাম্ভিকতা দেখাতে পারেন না।


Filed in: এক্সক্লুসিভ
error: Content is protected !!