4:06 pm - Monday February 19, 2018

মাদরাসা ছাত্রীদের পোশাক খুলে নেয়ার চেষ্টা, ২ ছাত্রী জখম

মাদরাসা ছাত্রীদের পোশাক খুলে নেয়ার চেষ্টা। ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র ভারতে ধর্মীয় দাঙ্গা সবচেয়ে বেশি হয় এ কথা মিথ্যা নয়। বিশেষ করে মোদি ক্ষমতা গ্রহণের পর এর পরিমাণ বেড়েছে কয়েকগুণ। কয়েক দিন আগেও একটি প্রকাশিত বইয়ে দেখা গেছে দেশটির স্কুলে সংখ্যালঘু মুসলিম শিশু শিক্ষার্থীরা নিগ্রহের শিকার হয়। ঠিক তেমনি একটি ঘটনা ঘটলো পশ্চিম বঙ্গের মালদহে।

সেখানে একটি মাদরাসা দখল নিতে পায়তারা চালাচ্ছিল স্থানীয় হিন্দু নেতারা। যখন কোনো ভাবেই পাচ্ছিল না, তখন মাদরাসা ছাত্রীদের বিভিন্নভাবে উত্তক্ত করছিল।

শেষ পর্যন্ত বুধবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে মাদ্রাসায় গিয়ে গিয়ে ছাত্রীদের উপর চড়াও হয় তারা। ছাত্রীদের পোশাক ছিঁড়ে ফেলার চেষ্টা করা হয়। হামলায় ২ ছাত্রী গুরুতর জখম হয়েছে। তাদের স্থানীয় হাসপাতলে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

জি নিউজের সংবাদে বলা হয়, জমি মাফিয়াদের হাত থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাঠ রক্ষা করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছে ছাত্রীরা। বাঁশ, লাঠি, ধারালো অস্ত্র নিয়ে ছাত্রীদের ওপর হামলা করে তারা। এমনকি ছাত্রীর ইউনিফর্মও ছিঁড়ে ফেলার চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা। ঘটনাকে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মালদহের গাজোলের রামনগর হাই মাদরাসা।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, এই মাদরাসার মাঠের ওপর দীর্ঘদিন ধরেই নজর ছিল স্থানীয় কিছু জমি মাফিয়া ও হিন্দু নেতাদের। তা নিয়ে মাদরাসা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বচসাও চলছিল। নানা সময়ে হুমকি দেয়া হয়েছিল। তবে কোনোভাবেই তাদের কাছে মাথা নত করেনি কর্তৃপক্ষ। এনিয়ে একাধিকবার থানায় অভিযোগ করলেও রহস্যজনকভাবে নিরব ছিল পুলিশ।

বুধবার সকালে ছাত্রীরা মাদরাসায় ঢুকতেই চড়াও হয় ওই মাফিয়ারা। বাঁশ, লাঠি, ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। প্রতিরোধ গড়ে তুলতে গিয়ে নিগৃহীত হতে হয় বেশ কিছু ছাত্রীকে। তাদের পোশাক ছিঁড়ে ফেলার চেষ্টা করা হয় বলেও অভিযোগ।

হামলায় ২ ছাত্রী গুরুতর জখম হয়েছে। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনায় মাদ্রাসার ছাত্রীদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।


Filed in: ক্রাইম ওয়ার্ল্ড