6:04 am - Thursday January 18, 2018

শৈত্যপ্রবাহে কাঁপছে দেশ

ঢাকাসহ সারা দেশে মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বইছে। তাপমাত্রা নেমেছে সাড়ে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নামায় জেঁকে বসা শীতে কাঁপছে দেশ। এই অবস্থা আরো কয়েকদিন চলতে পারে।

আবহাওয়াবিদরা জানান, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয় পশ্চিমবঙ্গ পর্যন্ত বিস্তৃত হওয়ায় শীত বেড়েছে বাংলাদেশে। পৌষের দ্বিতীয়ার্ধে এসে হঠাৎ করেই দেশে শৈত্যপ্রবাহ বেড়ে গেছে। এই অবস্থা আরো কয়েকদিন চলতে পারে।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, শ্রীমঙ্গল এলাকাসহ রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে বয়ে চলা শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে এবং আশপাশের এলাকায় বিস্তৃত হতে পারে। শুক্রবার দিন ও রাতের তাপমাত্রায় তেমন কোনো পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই।

শুক্রবারের আবহাওয়ার বুলেটিনে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত কুয়াশার দাপট থাকবে বলে আভাস দেওয়া হয়েছে।

আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, জানুয়ারিতে একটি মাঝারি (৬-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বা তীব্র (৪-৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস) এবং ২-৩টি মৃদু (৮-১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বা মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

বৃহস্পতিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল চুয়াডাঙ্গায় ৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস; চলতি শীত মৌসুমে এটাই সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে খুলনার মোংলায়, ২৮.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এছাড়া ঢাকায় থার্মোমিটারের পারদ এদিন ১০ দশমিক ৫, রংপুরে ৯, দিনাজপুরে ৮ দশমিক ৯, শ্রীমঙ্গলে ৮ দশমিক ৬, টাঙ্গাইলে ৮ দশমিক ৫, গোপালগঞ্জে ৮ দশমিক ৪, ময়মনসিংহে ৮, যশোরে ৭ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমেছে।

এদিকে তীব্র ঠাণ্ডায় কোথাও কোথাও কোল্ড ডায়রিয়া দেখা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার কুড়িগ্রামে দেড় বছর বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে ডায়রিয়ায়। শীতে সবচেয়ে বেশি ভুগতে হচ্ছে নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষকে।


Filed in: বিভিন্ন সংবাদ, শিল্প সাহিত্য
error: Content is protected !!