5:21 am - Friday January 19, 2018

জুমার নামাজে আগে যাওয়ার কি ফজীলত, জানলে অবাক হবেন আপনিও!

বিশ্বের মুছলিমদের জন্য জুমার নামাজ এক মহা নিয়ামত ৷ গরীব-মিছকীনদের জন্য এটি সাপ্তাহিক ঈদ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে ৷ কুরআন শরীফে জুমার নামাজের ব্যাপারে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে ৷ জুমার নামাজের আজানের সাথে সাথে মুমিনের কর্তব্য হচ্ছে নামাজের জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করা ৷

 

ব্যবসা-বাণিজ্য, কাজ-কর্ম ইত্যাদি থেকে অবসর গ্রহণ করে ওজু, গোসল করে সুন্দর ছুন্নতী পোশাক পরিধান করে আতর-সুগন্ধি লাগিয়ে জিকির-আজকার করতে করতে মসজিদের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করা উচিত ৷

 

হাদিস শরীফের মর্মানুযায়ী জুমার নামাজে প্রাথমিক আগমনকারীদের জন্য বিশাল সওয়াবের সু-সংবাদ জানা যায় ৷

«226» حَدَّثَنِي يَحْيَى عَنْ مَالِكٍ عَنْ سُمَيٍّ مَوْلَى أَبِي بَكْرِ بْنِ عَبْدِ الرَّحْمَنِ عَنْ أَبِي صَالِحٍ السَّمَّانِ عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ: ((مَنِ اغْتَسَلَ يَوْمَ الْجُمُعَةِ غُسْلَ الْجَنَابَةِ ثُمَّ رَاحَ فِي السَّاعَةِ الأُولَى فَكَأَنَّمَا قَرَّبَ بَدَنَةً وَمَنْ رَاحَ فِي السَّاعَةِ الثَّانِيَةِ فَكَأَنَّمَا قَرَّبَ بَقَرَةً وَمَنْ رَاحَ فِي السَّاعَةِ الثَّالِثَةِ فَكَأَنَّمَا قَرَّبَ كَبْشًا أَقْرَنَ وَمَنْ رَاحَ فِي السَّاعَةِ الرَّابِعَةِ فَكَأَنَّمَا قَرَّبَ دَجَاجَةً وَمَنْ رَاحَ فِي السَّاعَةِ الْخَامِسَةِ فَكَأَنَّمَا قَرَّبَ بَيْضَةً فَإِذَا خَرَجَ الإِمَامُ حَضَرَتِ الْمَلاَئِكَةُ يَسْتَمِعُونَ الذِّكْرَ)).

যেই ব্যাক্তি জুমার নামাজের জন্য সবার প্রথমে মাসজিদে গমন করে, তার আমলনামায় আল্লাহ তায়ালা একটি উট ছদক্বা করার ছওয়াব লিখে দেন ৷ এভাবে তার পরবর্তীতে যারা আসবে পর্যায়ক্রমে তারা বিভিন্ন পশু ছদক্বা করার ছওয়াব পাবে ৷যা নিম্নের হাদীছ খানার মাধ্যমে বুঝা যায়,,,,,


Filed in: ধর্ম
error: Content is protected !!